সংবাদমাধ্যমে বিহ্বল রিয়ার আর্জি
আমাদের কেউ বাঁচান: রিয়া চক্রবর্তী

রিয়া চক্রবর্তী

রিয়া চক্রবর্তী

সাকিব আল রোমান :
সুশান্ত সিং রাজপুত রহস্যমৃত্যু মামলায় মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তী।সুশান্তকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়া থেকে শুরু করে তাঁর আর্থিক সম্পত্তির হেরাফেরি এমনকী তাঁকে মাদকের নেশা ধরানোরও অভিযোগ রয়েছে যাঁর বিরুদ্ধে।

‘জাস্টিসফরসুশান্ত’ হলে ‘জাস্টিসফররিয়া’ নয় কেন? অপরাধ প্রমাণের আগেই অভিযুক্তকে দোষী ঠাউরে নরকযন্ত্রণা দেওয়ার অর্থ কী? খবরের চ্যানেলের পোড়খাওয়া সাংবাদিককেই যেন প্রশ্নগুলি ছুড়ে দিলেন সুশান্ত সিং রাজপুত রহস্যমৃত্যু মামলায় মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তী।

বিষয়টির তদন্তে এ বার আসরে নেমেছে নার্কোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো-ও। শোনা যাচ্ছে, রিয়া মাদক সেবন করতেন কি না তা জানতে দ্রুত রক্তের নমুনা সংগ্রহ করবেন তাঁরা। এ দিন প্রবাসী বাঙালি অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে মামলাও রুজু করেছে এনসিবি। অভিযোগ, তিনি ও তাঁর সহযোগীরা মাদকের জন্য সুশান্তের অর্থ নয়ছয় করতেন। এ দিন অবশ্য সর্বভারতীয় চ্যানেলকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রিয়া ব্যঙ্গের সুরে বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে মাদক সংক্রান্ত অভিযোগ আনাটাই শুধু বাকি ছিল।’ তাঁর সঙ্গে আলাপ হওয়ার আগে থেকেই সুশান্ত মারিজুয়ানার নেশা করতেন বলে জানান রিয়া।

প্রয়াতের পরিবারের অবশ্য অভিযোগ, তাঁর অর্থ জলের মতো খরচ করতেন রিয়া। শোনা যাচ্ছে, যুগলের ইউরোপ-সফরের খরচেরও গোটাটা দিয়েছিলেন সুশান্ত। সেখানে সঙ্গী ছিলেন রিয়ার ভাই শৌভিকও। দিদি ও তাঁর প্রেমিকার সঙ্গে কেন বিদেশসফরে গিয়েছিলেন শৌভিক? অভিনেত্রীর জবাব, ‘আমার ভাইয়ের সঙ্গেও রীতিমতো সখ্য ছিল সুশান্তের। তা এমনই যে শৌভিককে আমার সতীন বলে হাসিঠাট্টা করতাম মাঝেমধ্যে। ও যাওয়া নিয়ে দোটানায় ছিল। সুশান্ত বার বার বলাতেই পরে আসে শৌভিক।’ আর সফরের খরচ? ২৮ বছরের তরুণীর বক্তব্য, প্যারিসে তাঁকে এক ফ্যাশান শোয়ে যোগদানের জন্য নিমন্ত্রণ জানিয়েছিল একটি পোশাক সংস্থা। তারাই তার বিমানের টিকিট ও হোটেলে থাকার বন্দোবস্ত করে। কিন্তু সুশান্ত চেয়েছিলেন, সে সুযোগে ইউরোপ-সফর সেরে ফেলবেন। তাই তিনিই সে টিকিট বাতিল করে নতুন টিকিট কাটেন। রিয়ার দাবি, ‘কয়েক বছর আগে প্রাইভেট জেটে ছ’জন পুরুষবন্ধুকে নিয়ে থাইল্যান্ডে গিয়েছিল ও। ৭০ লক্ষ টাকা খরচ হয় সেখানে। কেউ কি সেটা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল? ও নিজের জীবন রাজার মতো কাটাত।’

তা হলে পরিবারের নিশানায় রিয়া কেন?
সুশান্তের পরিবার যে তাঁকে প্রথম থেকে পছন্দ করে না, সে কথা এ দিনও জানান রিয়া। সঙ্গে দাবি, সুশান্তের বাবা তাঁর মাকে অনেক অল্প ছেড়ে চলে যাওয়ায় তাঁর সঙ্গেও সম্পর্ক ভালো ছিল না অভিনেতার। তবে সে সব সমীকরণ ভুলে রিয়া চাইতেন, প্রিয়জনদের সঙ্গে যেন সুসম্পর্ক তৈরি হয় সুশান্তের।

যে প্রেমিকের জন্য এত চিন্তা, সেই তাঁকে কেন ৮ জুন ছেড়ে গেলেন রিয়া?

তাঁর দাবি, সুশান্তই চলে যেতে বলেছিলেন তাঁকে। সে সময় তিনিও থেরাপি করাচ্ছিলেন বলে জানান রিয়া। ৮ জুন সুশান্ত তাঁকে জানান, দিদি মিতু সিং আসছেন। রিয়া যেন বাড়ি ছেড়ে চলে যান।

এর পরের ছ’দিন কী ঘটে, দিশা সালিয়ানের মৃত্যুর সঙ্গে অভিনেতার মৃত্যুর কী যোগ, এ ব্যাপারে সম্পূর্ণ আঁধারে তিনি। একটি ব্যাপার অবশ্য নিশ্চিত করছেন তিনি। ২০১৩ সালে প্রথম অবসাদে আক্রান্ত হন সুশান্ত। তার পর ঠিক থাকলেও শেষের ক’মাস ফের ওষুধ খাচ্ছিলেন অভিনেতা।

অর্থাৎ অভিযোগগুলি সারবত্তাহীন। অথচ সে সবের ভিত্তি করে গত কয়েক মাস যা চলছে, তাতে তিনি-ও আত্মঘাতী হওয়ার কথা ভেবেছেন একাধিকবার, সংবাদমাধ্যমে স্বীকারোক্তি বিহ্বল রিয়ার। তাঁর কথায়, ‘আমার বাবা প্রাক্তন সেনা অফিসার, মা গৃহবধূ যিনি হয়তো এ বার হাসপাতালে ভর্তি হবেন। ভাই হয়তো আর কলেজে সুযোগ পাবে না।’ কারণ? প্রমাণহীন অভিযোগ। সত্যিই কি বলিউড মাফিয়াদের ষড়যন্ত্রের অংশ নন তিনি? বিহ্বল রিয়া এ প্রশ্নের উত্তরে যেন খানিক কৌশলী হয়েই অভিনেত্রী সঞ্জনা সাংঘির নাম তুললেন। জানালেন, #মিটু-র সময়ে সঞ্জনাকে জড়িয়েই সুশান্তের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ আনা হয় যা অভিনেতাকে সাংঘাতিক বিচলিত করেছিল। কঙ্গনা রানাওয়তের অবশ্য দাবি, সুশান্ত বলিউডের নোংরা গোপন কথাগুলি জেনে গিয়েছিলেন। তার জেরেই এই পরিণতি।

সত্যাসত্য জানা নেই। তবে রিয়া মুখ খোলায় তুমুল শোরগোল সংবাদমাধ্যমে।

পূর্ববর্তী পড়ুন

জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে পদত্যাগ করছেন

পরবর্তী পড়ুন

জুমআর দিনে মুমিনের জন্য যত চমকপ্রদ ঘোষণা

মন্তব্য করুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten + 16 =

সর্বাধিক পঠিত